করোনার প্রভাবে এবার অনলাইনে বিশ্বব্যাপী আইটেক দিবস-২০২০ পালিত হচ্ছে। মঙ্গলবার (১৫ সেপ্টেম্বর) সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র প্রদর্শন, অভিজ্ঞতা বিনিময় ইত্যাদি অনলাইনে প্রচারের মাধ্যমে দিবসটি উদযাপন করে ঢাকাস্থ ভারতীয় হাই কমিশন।

১৯৬৪ সালে ভারতীয় কারিগরি ও অর্থনৈতিক সহযোগিতা কৌশল কাঠামোর আওতায় দেশটির উন্নয়ন সহযোগিতা কর্মসূচির অংশ হিসেবে আইটেক কর্মসূচি প্রচলিত হয়। যার মাধ্যমে উন্নয়নশীল দেশগুলোকে ভারতের উন্নয়ন অভিজ্ঞতা প্রদান করা হয়। প্রতি বছর হিসাব, নিরীক্ষা, ব্যবস্থাপনা, এসএমই, গ্রামীণ উন্নয়ন, সংসদীয় বিষয়াবলীর মত বিভিন্ন ক্ষেত্রে প্রশিক্ষণ কোর্সের জন্য ১৬০টি সহযোগী দেশে ১০ হাজারের বেশি প্রশিক্ষণ পর্বের আয়োজন করা হয়। আইটেক সহযোগিতায় বাংলাদেশ প্রধানতম এবং গুরুত্বপূর্ণ অংশীদার।

এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ২০০৭ সাল থেকে আইটেক কর্মসূচির অধীনে চার হাজারের বেশি বাংলাদেশি তরুণ পেশাজীবী ভারতে এ ধরনের বিশেষায়িত স্বল্প ও মধ্যমেয়াদী কোর্স সম্পন্ন করেছে। এই প্রশিক্ষণ কর্মসূচিগুলোর মাধ্যমে বাংলাদেশের মেধাবীদের সাথে আমাদের সেরা বিষয়গুলো ভাগ করে নেয়ার সুযোগ পাই এবং আমরাও এদেশের উন্নয়ন অভিজ্ঞতা থেকে সমানভাবে উপকৃত হই।

এতে আরো বলা হয়, ২০২০ সালে বাংলাদেশে কর্মরত স্বাস্থ্যসেবাদানকারী এবং প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের জন্য কোভিড-১৯ ব্যবস্থাপনার কৌশল সম্পর্কিত কিছু বিশেষায়িত ই-আইটেক কোর্স আয়োজন করা হয়। ভুবনেশ্বরের এআইআইএমএসের উদ্যোগে বাংলা ভাষায় কোভিড-১৯ বিষয়ক একটি বিশেষ ই-আইটেক কোর্স আয়োজন করা হয়, যেখানে সারা বাংলাদেশ থেকে দেড় শতাধিক প্রশিক্ষণার্থী অংশ নিয়েছিলেন। মুসৌরিতে অবস্থিত ন্যাশনাল সেন্টার ফর গুড গভর্ন্যান্স ‘মহামারীতে সুশাসন অনুশীলন’ বিষয়ে বিভাগীয় ও জেলা পর্যায়ের প্রশাসনিক প্রধানদের জন্য আর একটি অনলাইন প্রশিক্ষণের আয়োজন করে। অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অফ মেডিকেল সায়েন্সেস, রায়পুর স্বাস্থ্যসেবা পেশাদারদের জন্য একটি ই-আইটেক কোর্সের আয়োজন করে, যেখানে বাংলাদেশের ৯০ জনেরও বেশি স্বাস্থ্যসেবাদানকারী অংশ নিয়েছিল।

এদিকে বাংলাদেশে আইটেকের জনপ্রিয়তা বিবেচনায় রেখে, ভারতীয় হাই কমিশন, ঢাকা কোভিড-১৯ পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার পরে আনুষ্ঠানিকভাবে আইটেক দিবস উদযাপনের পরিকল্পনা করছে।

The post অনলাইনে ৫৬তম আইটেক দিবস পালিত appeared first on Digi Bangla.

Leave a Reply

%d bloggers like this: