আগের বোলিং অ্যাকশনে একই লেংথে বল করাটা তাইজুল ইসলামের কাছে ঢের সহজতর ছিল। যেহেতু টেস্টেই তিনি থিতু ছিলেন তাই স্পট বোলিংটাও তার কাছে প্রত্যাশিত ছিল এবং সেটা তিনি বেশ স্বাচ্ছন্দেই করতেন। কিন্তু অসুবিধা একটাই, বৈচিত্র্য ছিল না বিধায় ওই অ্যাকশনে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টিতে বল করাটা তার জন্য দূরহ ছিল। তবে অ্যাকশন বদলে ফেলায় এখন যেমন একই লেংথে অনবরত ডেলিভারি দিতে পারছেন তেমনি খুঁজে পেয়েছেন বৈচিত্র্যও। তাছাড়া ডেলিভারিতে টপ স্পিন ও বাউন্সারের মত নতুন অস্ত্র যোগ হওয়ায় টেস্ট স্পেশালিস্টের তকমা পাওয়া বাঁহাতি এই স্পিনার এখন ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টিতেও আত্নবিশ্বাসী হয়ে উঠেছেন। নতুন অ্যাকশনে তাই বিস্তর সুবিধাই দেখছেন তাইজুল।

করেনা অতিমারিকালের অনুশীলনে দলের সিংহভাগ সতীর্থই যখন ফিটনেস নিয়ে ব্যস্ত তখন তাইজুল উঠে পড়ে লেগেছেন নতুন কিছুর সন্ধানে। এবং সেই সন্ধান তিনি পেয়েছেনও। নিজেকে ভেঙে নতুন এক তাইজুল বানিয়েছেন। ৭ মাস আগেও যে তাইজুল শুধু্ই টেস্ট সর্বস্ব ছিলেন অ্যাকশন বদলে সেই তিনি এখন সংক্ষিপ্ত সংস্করণের জন্যও প্রস্তুত।

মঙ্গলবার (১৫ সেপ্টেম্বর) বিসিবির পাঠানো ভিডিও বার্তায় এসব কথা জানালেন তিনি।

তাইজুল বলেন, ‘মূলত আমার আগের যে অ্যাকশনটা ছিল জায়গায় বল করাটা অনেক সুবিধা ছিল। কিন্তু ঐ অ্যাকশনটাতে তিন ফরম্যাটে চালিয়ে নেওয়া কঠিন। বৈচিত্রের মাত্রাটা একটু কম ছিল। এখন যে নতুন বোলিং অ্যাকশনটা এটা নিয়ে ভেট্টোরির সাথে কথা বলেছি সে বলল এটা দিয়ে তিন ফরম্যাটে খেলতে পারবা। যার জন্য বিভিন্ন দিক চিন্তা করে, বলের বাউন্সের দিক চিন্তা করে, বিভিন্ন বৈচিত্রের কথা চিন্তা করে অ্যাকশনটা পরিবর্তন করা। আমি ইতোমধ্যে ফলাফলও পাচ্ছি, ব্যাটসম্যানদের বল করে। বৈচিত্রের দিকে সাহায্য করছে নতুন অ্যাকশনটা।’

নতুন অ্যাকশন তার শরীরের সঙ্গে দারুণ মানিয়ে গেছে এবং এই অ্যাকশনে টানা দুই ঘণ্টা বল করলেও কোন অসুবিধা বোধ করেন না বলে জানালেন অভিষেকেই হ্যাট্টিক করে ইতিহাস গড়া এই টাইগার।

‘আমার শরীরের সাথে অ্যাকশনটা মানিয়ে গেছে। এখন দুই ঘন্টা বোলিং করতেও সমস্যা হচ্ছে না। আমাদের ব্যক্তিগত কিছু অনুশীলন ছিল, প্রত্যেকটা খেলোয়াড় এক-দুই ঘণ্টা করে সেশন করছিল। এই সেশনগুলো করাতে, ব্যক্তিগত অনুশীলন করাতে খেলোয়াড়দের সুবিধাটা হয়েছে যার যার কাজগুলো নিজের মত করে করতে পারছি। আত্মবিশ্বাসের লেভেল বলতে এখন ব্যাটসম্যানদের বল করা শুরু করেছি, দুই সপ্তাহ হচ্ছে। আত্মবিশ্বাসটা বাড়ছে, কিছুদিন গেলে আত্মবিশ্বাস আরও বেড়ে যাবে।’

বিসিবির কেন্দ্রীয় চুক্তিতে এবার লাল বলের পাশাপাশি সাদা বলেও তাইজুল ইসলামকে রাখা হয়েছে। বলার অপেক্ষাই থাকছে না তাকে নিয়ে বিসিবির ভাবনার পরিবর্তন এসেছে। বিসিবির পরিবর্তিত ভাবনার যথাযথ মূল্যায়ন করতেই হয়ত নিজেকেও ভেঙেচুরে গড়েছেন ২৯ বছর বয়সী এই বাঁহাতি স্পিনার।

The post অ্যাকশন বদলের ‘সুবিধা’ দেখছেন তাইজুল appeared first on Sarabangla | Breaking News | Sports | Entertainment.

Leave a Reply

%d bloggers like this: