ম্যাচ ফিক্সিংয়ের অভিযোগে গ্রেপ্তার লঙ্কান স্পিনার

এবার ম্যাচ ফিক্সিংয়ের অভিযোগে শ্রীলঙ্কার সাবেক স্পিনার সচিত্রা সেনানায়েকে গ্রেপ্তার হয়েছেন। ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তাকে আদালতে পেশ করা হবে। শ্রীলঙ্কা পুলিশের মিডিয়া বিভাগ বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।  সেনানায়েকের বিরুদ্ধে অভিযোগ, ২০২০ সালের লঙ্কান প্রিমিয়ার লিগে তিনি একাধিক ক্রিকেটারকে ম্যাচ পাতাতে প্ররোচিত করেছেন। ওই আসরে তিনি খেলেননি। এমনকি আসর চলাকালীন দেশেও ছিলেন না।

এ বিষয়টি তখনই সংশ্লিষ্ট ক্রিকেটার ও ফ্র্যাঞ্চাইজি আইসিসির দুর্নীতি দমন বিভাগকে (আকসু) জানিয়েছিল। তাকে ক্রীড়া আইনে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ক্রীড়াঙ্গন বিশুদ্ধ রাখতে আইনটি শ্রীলঙ্কা ২০১৯ সালে প্রণয়ন করেছে।

এই আইনে কোন ব্যক্তি দেশটির যে কোন খেলার ফলাফল, অগ্রগতি, আচরণ প্রভাবিত করার জন্য কাউকে অনুরোধ বা প্ররোচিত করলে বা প্ররোচিত করার নির্দেশ দিলে তা খেলাধুলায় দুর্নীতি বলে গণ্য হবে।  আইনটির অধীনে সেনানায়েকেই শ্রীলঙ্কার প্রথম গ্রেপ্তারকৃত ব্যক্তি।

গত মাসে শ্রীলঙ্কার আদালত সেনানায়েকের ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছিল। সেনানায়েকে ২০১২-২০১৬ সাল পর্যন্ত শ্রীলঙ্কা জাতীয় দলের হয়ে ক্রিকেট খেলেছেন। ২০১৪ সাল পর্যন্ত নিয়মিত ছিলেন তিনি। ওই বছর শ্রীলঙ্কার টি-২০ বিশ্বকাপ জয়ী দলের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য ছিলেন এই স্পিনার।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।