ছোট্ট একটি গাছ কিনতে খরচ চার লাখ টাকা। তাও আবার গাছে রয়েছে মাত্র চারটি পাতা! শুনতে অবাক লাগলেও এমনটাই ঘটেছে নিউজিল্যান্ডে। সম্প্রতি অনলাইন নিলামে মাত্র চারটি পাতা বিশিষ্ট গাছটি বিক্রি হয়েছে বাংলাদেশি মুদ্রায় ৪ লাখ টাকার বেশি।

কিন্তু কী এমন বিশেষত্ব গাছটির? জানা গেছে, গাছটি হল বিরল প্রজাতির র‌্যাফিডোফোরা টেট্রাসপেরমা (Rhaphidophora Tetrasperma)। যা কি না আবার ফিলোডেন্ড্রন মিনিমা নামেও পরিচিত। স্থানীয় মুদ্রায় যার দাম ৮ হাজার ১৫০ নিউজিল্যান্ড ডলার।

আসলে ঘরের মধ্যে রাখা যায়, সেরকমই ছোট গাছ এটি। কিন্তু নিলাম হওয়া গাছটির বিশেষত্ব হল, এর চারটি পাতার প্রত্যেকটিতে দু’টি পৃথক রং। প্রতিটি পাতায় অদ্ভুতভাবে হলুদ রঙের ছোপ রয়েছে। তাও আবার একেবারে মাঝখান দিয়ে। পাতার অর্ধেকটা সবুজ আর ঠিক অর্ধেকটা হলুদ। এমন রং এই গাছে কখনও দেখা যায় না।

‘ট্রেড মি’ বলে একটি অনলাইন ট্রেডিং সাইটে গাছটি নিলামে ওঠে। দেখতে দেখতে সেটির দাম এতটা বেড়ে যায়। এই গাছটি প্রসঙ্গে এক পরিবেশবিদ জানান, এই ধরনের গাছের সবুজ অংশে সালোকসংশ্লেষ হয় এবং হলুদ অংশে শর্করা তৈরি হয়।

মোট তিনজন মিলে এই গাছটি কিনেছেন। তাদেরই একজন জানান, আমরা আসলে তিনজনে মিলে এই গাছটি কিনেছি। এরপর একটি সুন্দর ট্রপিক্যাল বাগান তৈরি করা হবে। তাতে এরকম বিরল প্রজাতির গাছ থাকবে। এছাড়া পাখি এবং প্রজাপতিও থাকবে। আর সেই বাগানের মাঝে থাকবে একটি রেস্তরাঁ। শুধু নিউজিল্যান্ডে নয়, গোটা বিশ্বে এরকম ট্রপিক্যাল বাগান আর কোথাও হয়তো দেখা যাবে না বলেও দাবি করেন তিনি।

অর্থসূচক/কেএসআর

The post মাত্র চারটে পাতাবিশিষ্ট গাছের দাম ৪ লাখ টাকা! first appeared on ArthoSuchak.

Leave a Reply

%d bloggers like this: