<

p style=”text-align: justify;”>ঢাকা: ঢাকার সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক আরও শক্তিশালী করতে চায় আঙ্কারা। বিশেষ করে দেশটি বাণিজ্যিক সম্পর্ক বাড়াতে বেশকিছু প্রস্তাব দিয়েছে। তুরস্ক সফররত পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বুধবার (১৬ সেপ্টেম্বর) দেশটির রাষ্ট্রপতি রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ানের সঙ্গে বৈঠক করেন। ওই বৈঠকে বাণিজ্যিক সম্পর্ক বাড়াতে প্রস্তাবনা দিয়েছে তুরস্ক।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বুধবার (১৬ সেপ্টেম্বর) তুরস্কের রাষ্ট্রপতি রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ানের সঙ্গে এক বৈঠকে মিলিত হন। বৈঠকে তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত চাভাসওলু উপস্থিত ছিলেন।

উষ্ণ ও আন্তরিক পরিবেশে অনুষ্ঠিত এই বৈঠকে তারা বাণিজ্যিক পণ্য আদান- প্রদানের বিষয়ে নতুন উদ্যোগ গ্রহণ, আরও প্রতিনিধিদল প্রেরণ এবং মেলা ও প্রদর্শনীতে অংশগ্রহণের ওপর গুরুত্ব আরোপ করেন। শিক্ষা, সংস্কৃতি ও সামরিক খাতে চলমান সহযোগিতা শক্তিশালী বলে অভিহিত করেন তারা। আলোচনায় উভয়েই বিদ্যমান বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের বিষয়ে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন।

দুই দেশের বাণিজ্য সম্পর্ক বাড়াতে রাষ্ট্রপতি রিসেপ তাইয়েপ সুনির্দিষ্ট কিছু প্রস্তাব দেন। যার মধ্যে রয়েছে বিদ্যমান শুল্কবাধা এড়িয়ে নতুন পণ্য, বস্ত্র, ওষুধ ও অন্যান্য খাতের বিনিয়োগ। এছাড়া উভয় দেশে বাণিজ্য মেলায় অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া। এ ছাড়া বাংলাদেশে তুরস্কের আর্থিক সহযোগিতায় একটি আধুনিক হাসপাতাল নির্মাণের প্রয়োজনীয় জমি বরাদ্দের জন্য তুরস্কের রাষ্ট্রপতি প্রস্তাব দেন।

আগামী বছরের গোড়ার দিকে ঢাকায় অনুষ্ঠিতব্য ডি-৮ শীর্ষ সম্মেলনে তুরষ্কের রাষ্ট্রপতি ও বর্তমান চেয়ার এরদোগান যোগদানের বিষয়ে সম্মতি জ্ঞাপন করেছেন। এ প্রসঙ্গে তিনি নতুন সদস্য রাষ্ট্র যুক্ত করে ডি-৮ সম্প্রসারণের ব্যাপারে জোর দেন।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় আরও জানিয়েছে, তুরষ্কের রাষ্ট্রপতি নির্যাতিত ও দুর্গত রোহিঙ্গা শরণার্থীদের বংলাদেশে আশ্রয় দেয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভূয়সী প্রশংসা করেন। এ বিষয়ে দ্বিপাক্ষিক ও আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে সম্ভাব্য সকল বিষয়ে তিনি বাংলাদেশের পাশে থাকবেন মর্মে অভিমত ব্যক্ত করেন। বিদ্যমান কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে তুরস্ক হতে আরও প্রয়োজনীয় সহযোগিতা প্রেরণে আশ্বাস দেন।

মহামারি কোভিড-১৯ অবসানের পর দ্রুততম সময়ে ঢাকায় নব-নির্মিত তুরস্কের দূতাবাস ভবন উদ্বোধনের প্রাক্কালে প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান বাংলাদেশে ভ্রমণের আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

দুই দেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মধ্যে নিয়মিত বিরতিতে উচ্চতর পর্যায়ে ফেরেন অফিস কনসালটেশন বৈঠক অনুষ্ঠিত হওয়ায় সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন রাষ্ট্রপতি রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান। অদূর ভবিষ্যতে উভয় পক্ষ উচ্চতর পর্যায়ে নিয়মিত আলাপ-আলোচনা চালিয়ে নেওয়ার জন্য তিনি প্রয়োজনীয় ফোরাম গঠনের ব্যাপারে একমত হন।

The post শুল্কবাধা এড়িয়ে দুইদেশের বাণিজ্যিক সম্পর্ক বাড়াতে চায় তুরস্ক

appeared first on Sarabangla | Breaking News | Sports | Entertainment.

Leave a Reply

%d bloggers like this: