ইউএনওদের নিরাপত্তা দিতে প্রত্যেক অফিসারের জন্য আপাতত ৪ জন করে আনসার সদস্য নিয়োগ দেয়া শুরু করেছে সরকার। যারা কর্মকর্তাদের সাথে সার্বক্ষণিক থেকে অথবা তাদের বাসভবন কিংবা অফিসে নিরাপত্তা নিশ্চিত করবে। নিরাপত্তা দেয়া শুরু হলেও নিরাপত্তার ধরণ এখনও চূড়ান্ত হয়নি বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল।

দাপ্তরিক কাজের পাশাপাশি মাঠ পর্যায়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করতে হয় ইউএনওদের। ফলে অনেক প্রভাবশালী মহলের রোষানলে পড়েন তারা, থাকেন নিরাপত্তা ঝুঁকিতে। তাই তারা নিরাপত্তার দাবি জানিয়ে আসছিলেন বহুদিন ধরে।

আনসার

প্রতিবছর জেলা প্রশাসক সম্মেলন বা ডিসি সম্মেলনে, ইউএনওদের পক্ষে নিরাপত্তা নিশ্চিতের দাবি ডিসিরাই তোলেন। এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নিতে ২০১৮ সালের ১৩ই আগস্ট মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে চিঠিও দেয়। এরপর ২ বছর পার হয়ে গেলেও দৃশ্যত কোন ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। হয়েছে ইউএনও ওয়াহিদার ওপর হামলার পর।

প্রাথমিক একটা ব্যবস্থা নিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, যা চলমান। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেন, ‘ইউএনওদের নিরাপত্তা ব্যবস্থা দেয়া শুরু হয়েছে। পর্যায়ক্রমে সব ইউএনওদেরই এর আওতায় নেয়া হবে।’ প্রাথমিক নিরাপত্তা ব্যবস্থায় সন্তোষ প্রকাশ করে সরকার-প্রতিশ্রুত পূর্ণাঙ্গ নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত হবে বলে আশা করছেন ইউএনওরা।

Leave a Reply

%d bloggers like this: